• শিরোনাম

    লবশাহ ফকির ও বাশারুক

    মোঃ এনামুল হক এনাম | মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮ | পড়া হয়েছে 467 বার

    লবশাহ ফকির ও বাশারুক

    লবশাহ ফকির ও বাশারুক

    প্রতি বছরই মাঘ মাসের ১২ ও ১৩ (জানুয়ারীর ২৫,২৬) তারিখ প্রবল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মাধ্যমে উপজেলার লাউরফতেহপুর ইউনিয়নের বাশারুক গ্রামবাসী লবশাহ ফকিরের ওরস পালন করে থাকে ।

    ওরস পালন শুরু হয়েছিল আজ থেকে প্রায় ১৪৫ বছর আগে ।

    লবশাহ এর সঠিক জন্ম ও মৃত্যু তারিখ জানা যায়নি, তবে মাঘ মাসের ১২ তারিখ ওনার ওফাত দিবস পালন করে থাকে তার ভক্ত বৃন্দরা ।

    এই ওরসের সময়ে গ্রামের মধ্য দিয়ে আত্মীয় স্বজনের সমাগম ঘটে ব্যাপক ভাবে। প্রতিটি
    ঘরে ঘরে নেমে আসে ঈদের আনন্দ।

    আশে পাশে কয়েকটি গ্রামে এই আনন্দের ছরাছরি হয়ে এবং দূর দূরান্ত থেকে মানুষ ছুটে আশে এই লবশাহ ওরসে গান শুনার উদ্দ্যেশ্য।

    অনেক ভক্তবৃন্দ আশা পূরণের জন্য মান্নত করে থাকে । সেই মান্নত আবার প্রতি লবশাহ ওরসে দিয়ে থাকে। সর্বোপরি এই সময়টাতে গ্রামে উৎসব বিরাজ করে । এই ওরসে বাংলাদেশের সব সনামধন্য বাউল শিল্পীগণ গান গেয়েছেন এবং এখনো গেয়ে থাকেন ।

    লবশাহ ফকিরকে নিয়ে অনেক রহস্য, মুজেজা ও সমালোচনা বিদ্যমান।

    তার কিছু ঘটনা গ্রামের মুরব্বিদের সহিত আলাপ করে জানতে পারলাম। অধিকাংশের মতে ওনি ছিলেন অবিবাহিত এবং বুজুর্গ ব্যক্তি। জীবদ্দশায় ওনার কিছু আলৌকিক ঘটনা প্রকাশ পায় ।

    কথিত আছে ওনি এক রাতের মধ্য একটি পুকুর কেটে তখনকার বিটঘরের জমিদারদের অবাক করে দিয়েছিলেন,এক সময় নাকি ওনার ভাই সিলেটে বাঘের আক্রমণের কবলে পড়েন আর লবশাহ তা ধ্যানের মাধ্যমে দেখে তার ভাইকে বাঘ থেকে উদ্দার করেন,একদা বাড়ি থেকে লবশাহ অল্প সময়ের মধ্যেই তার ভাইকে গরম মেরা পিঠা দিয়ে আসেন তখন ওনার ভাই অনেক দূরে ছিলেন। আর এগুলা প্রকাশ পায় ওনার ভাইয়ের মাধ্যমে। এইসব ছারাও লবশাহ এর অনেক কর্মকান্ড নাকি মানুষের মনে এখনো স্মরন করিয়ে দেই।

    লবশার মাজারের পশ্চিম পাশের পুকুরটিতে তিনি পয়সা দিয়ে ঢিল মারতেন বলেও কথিত আছে ।

    লবশাহকে নিয়ে কিছু সমালোচনাও আছি,,কেউ কেউ বলেছেন ওনি নাকি মানসিকভাবে সুস্থ ছিলেন না। একবার নাকি ওনি ওনার নিজের ত্যাগকৃত ময়লা পাতিলে করে আগুনে রান্না করতেন !

    ওরসের বর্তমান চিত্র,
    প্রচুর পরিমাণে কসমেটিক দোকানপাটের পসরা বসে । ওরস পালনের জন্য ওরস উৎযাপন কমিটির মধ্যমে ওরসের সব কিছু হয় এবং সব সিদ্ধান্তই মিটিংয়ের মাধ্যমে হয়ে থাকে ।

    তারপরেও লবশাহের মাজার ও ওরস বাশারুক গ্রামের ঐতিহ্য এবং ইতিহাসকে বহন করে যা বাশারুকের সামাজিক বন্ধনের বহিঃপ্রকাশ ।


    লেখকঃ এনামুল হক এনাম,
    মাস্টার্স অধ্যয়নরত ,লোক প্রশাসন বিভাগ, জাঃবিঃ এবং সভাপতি ; ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্র কল্যাণ সমিতি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ,
    Email: anamulhoque1015@gmail.com

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    নবীনগরে ভুয়া ডাক্তার আটক

    ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | 4288 বার

    Blue Whale এ আসক্ত নবীনগরের কিশোর ইমন

    ১৫ অক্টোবর ২০১৭ | 2223 বার

    নবীনগরে অস্ত্র সহ গ্রেপ্তার ১

    ২৯ জানুয়ারি ২০১৮ | 2084 বার

    আর্কাইভ

  • ফেসবুকে nabinagar71.com