• শিরোনাম

    অবশেষে নবীনগরে ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা

    নিউজ ডেস্ক | শনিবার, ২৬ মার্চ ২০২২ | পড়া হয়েছে 125 বার

    অবশেষে নবীনগরে ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা

    ফাইল ছবি

    অবশেষে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে প্রায় চার বছর পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে ‘উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগ’ এর দুটি আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। মোহাম্মদ আবু সাঈদকে আহবায়ক করে ৫১ সদস্যের নবীনগর উপজেলা ও এহসান আহমেদকে আহবায়ক করে ৪১ সদস্যের নবীনগর পৌর কমিটির অনুমোদন দেয় জেলা ছাত্রলীগ।

     

    শনিবার(২৬মার্চ) জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল ও সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

     

    ঘোষিত ৫১ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে আহবায়ক ছাড়াও আর ৬ জনকে যুগ্ম আহবায়ক করা হয়েছে। তারা হলেন মো. নাসির উল্লাহ, মোহাম্মদ নাজিম হোসেন, সাকিব মাহমুদ, কবির আহমেদ, মোবারক হোসেন ও আবদুল্লাহ আল তুষার।

     

    অন্যদিকে ঘোষিত ৪১ সদস্য বিশিষ্ট পৌর ছাত্রলীগের কমিটিতে আহবায়ক ছাড়াও আরও ৮ জনকে যুগ্ম আহবায়ক রাখা হয়েছে। তারা হলেন সামির আহমেদ সাইদুল, সাইফুল ইসলাম সাফু, সাথিক হাসান তপু, আকরাম আহমেদ, হিমেল পিয়াস রণী, শুভ আহমেদ রাজু, তানভীর রহমান ও সোহান মিয়া।

     

    এদিকে দুটি কমিটি ঘোষিত হওয়ার পর শনিবার সকালে ওই দুই কমিটির অনুসারীরা উপজেলা সদরে বাদ্য বাজিয়ে আনন্দ মিছিল বের করে। কিন্তু ঘোষিত কমিটিরই একাধিক সদস্যসহ ছাত্রলীগের কমিটিতে যুক্ত হতে না পারা অনেকেই এই কমিটিকে অছাত্রের, প্রশ্নবিদ্ধ ও বিতর্কিত কমিটি বলে অভিহিত করেছেন।

     

     

    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ছাত্রলীগ নেতা বলেছেন, ‘দুটি কমিটিতেই বহু অছাত্র রয়েছে। গঠনতন্ত্র অনুযায়ি অনেকেরই বয়স বেশী হয়ে গেছে। অনেকেই পেশাদার ব্যবসায়ী। এটি জেলা কমিটি কেন্দ্রীয় এক সাবেক ছাত্রনেতার দ্বারা আর্থিকভাবে লাভবান হয়ে দুটি মনগড়া পকেট কমিটি নবীনগরকে উপহার দিয়েছেন।

     

     

    এ বিষয়ে ঘোষিত উপজেলা আহবায়ক কমিটির আহবায়ক মোহাম্মদ আবু সাঈদ বলেন,২০১৯ সালে নবীনগরের শ্রদ্ধেয় এমপি এবাদুল করিম বুলবুল,উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফয়জুর রহমান বাদল,সাধারন সম্পাদক এম.এ.হালিম ভাই সম্মেলিত ভাবে কমিটির একটি তালিকা তৈরি করে জেলা ছাত্রলীগের কাছে পাঠান,করোনার কারনে কমিটি দিতে এত দেরি হয়েছে।’আহবায়ক কমিটিতো দেয়া হয়েছে মাত্র তিন মাসের জন্য।

     

     

    তিন মাসের মধ্যে সম্মেলনের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ কমিটি আমরা করতে ব্যার্থ হলে, এই আহবায়ক কমিটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে যাবে। সুতরাং ঘোষিত কমিটি নিয়ে কোন বিতর্কে জড়ানো আমাদের উচিৎ হবেনা। যারা আহবায়ক কমিটিতে যুক্ত হতে পারেননি, তাদেরকে আমরা যোগ্যতার ভিত্তিতে সবার সাথে আলোচনা করে একটি সুন্দর সম্মেলনের মাধ্যমে গ্রহণযোগ্য কমিটি উপহার দেবো ইনশাল্লাহ।’

     

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হাসান রুবেল জানান,রাজনিতীতে সবারই মাই ম্যান থাকে,যাদেরকে কমিটিতে রাখা হয়েছে,আমি যখন ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলাম না,জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক ছিলাম তারা তখন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতি করে।আর আহবায়ক পদ হচ্ছে একটি ‘আপনি যত নিরপেক্ষভাবেই কমিটি ঘোষণা করুন,দুপক্ষকে কখনই খুশী করতে পারবেন না।

     

    আমরা নবীনগরের বর্তমান ও সাবেক দুই এমপিসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে কথা বলে তাদের কনসার্ণ নিয়েই কমিটির অনুমোদন দিয়েছি।আর এই কমিটি ৯০ দিনের জন্য দেয়া হয়েছে,এইটা আহবায়ক কমিটি বা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটিও বলতে পারেন।এরপরও কারো অসন্তোষ কিংবা ক্ষোভ থাকলে, তিন মাসের মধ্যে যে সম্মেলন হবে, সেখানে নিশ্চয় তারা তাদের যোগ্যতা দিয়ে কমিটিতে আসতে পারবেন।করোনার কারনে দীর্ঘদিন কমিটি ছিলনা অনেকটা মানবিক দিক বিবেচনা করেও এই কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    নবীনগরে প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যা

    ১৫ অক্টোবর ২০২০ | 919 বার

    আর্কাইভ

  • ফেসবুকে