• শিরোনাম

    করোনাকালীন সম্মুখ যোদ্ধা নবীনগরের দুই ভাই-বোন তাদের ও পরিবার

    ওয়াহেদুজ্জামান দিপু | রবিবার, ৩১ মে ২০২০ | পড়া হয়েছে 2501 বার

    করোনাকালীন সম্মুখ যোদ্ধা নবীনগরের দুই ভাই-বোন তাদের ও পরিবার

    ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলার লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের আহাম্মদপুর গ্রামের সফল পিতা আবদুল হান্নান সরকার ও রত্নগর্ভা মা খোশনাহার বেগম।

    গল্প নয় সত্যি বলছি।

    আবদুল হান্নান সরকার ও খোশনাহার  বেগম দম্পতির পুত্র ডাঃ মোহাম্মদ ইখতিয়ার উদ্দিন, বর্তমানে সহকারী সার্জন হিসেবে কর্মরত আছেন নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

    তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা করোনা ভাইরাস চিকিৎসার জন্য গঠিত ১০-সদস্যের চিকিৎসকদের কমিটির একজন,স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সার্বিক নির্দেশনায় করোনা আক্রান্তদের সাধ্যমতো চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছেন।

    ডাঃ মোহাম্মদ ইখতিয়ার উদ্দিন

    আবদুল হান্নান সরকার ও খোশনাহার বেগম দম্পতির দ্বিতীয় কন্যা আসমা জাহান সরকার, সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে কর্মরত আছেন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, বরিশালে।

    বাংলাদেশে করোনা সংকটের শুরু থেকে এই দুই ভাই-বোন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার প্রদত্ত নির্দেশনা অনুযায়ী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন নিরবে-নিভৃতে।

    আসমা জাহান সরকার, সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট

    দেশব্যাপী সাধারণ ছুটিতে অনেক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও তাদের নেই কোন সাপ্তাহিক  ছুটি, নেই কোন সাধারণ ছুটি।

    ডাঃ মোহাম্মদ ইখতিয়ার উদ্দিন দিন-রাত চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছেন, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আসমা জাহান সরকার করোনাকালীন সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা সহ দ্রব্যমূল্যে স্থিতিশীল রাখতে বাজার মনিটরিং ও করোনা আক্রান্ত /মৃত ব্যাক্তির বাড়ি লক-ডাউন করতে সার্বক্ষণিক কর্মস্থলে থেকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছেন।

    এছাড়া জেলা প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা গরীব -দুঃখী  মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন।

    তাদের কোন ঈদের ছুটিও ছিল না, স্ব-স্ব কর্মস্হলেই ঈদ করতে হয়েছে।

    আসমা জাহান সরকারের স্বামী বায়েজিদ বিন মনসুর, বড় ভগ্নিপতি মোঃ সাজিদুর রহমান ও ফ্রন্ট লাইনের যোদ্ধা তারা দু’জনেই গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে কর্মরত আছেন  বাংলাদেশ পুলিশে। তাদের নিজ জেলাও ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

    মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য, একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারে না” ভূপেন হাজারিকার সেই বিখ্যাত গান।

    আহা! কি আবেদন সে গানের। যে গানে আর্তি ফুটে  উঠেছে মানবতার। যুগ যুগ ধরে মানুষ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে সকল হিসেব-নিকেশ, জাত-ভেদ, বিভেদ ভুলে।

    বায়েজিদ বিন মনসুর,সহকারী পুলিশ সুপার

    আমরাও মানুষ। আমাদেরও মন কেঁদে ওঠে, বুকের ভেতরটা মোচড় দিয়ে ওঠে অসহায়ের আর্তনাদে।

    মানুষের পাশে দাঁড়ানোর অদম্য স্পৃহা আর মানব সেবার মহান ব্রত নিয়ে প্রজাতন্ত্রের  কর্মচারী হিসেবে তাঁরা নিয়োজিত আছেন  পাবলিক সার্ভিসে।

    করোনায় যখন সারা বিশ্ববাসী অস্থির, আতঙ্কগ্রস্ত। যখন ঘরে থাকাই নিরাপদ থাকার প্রধান নিয়ামক তখনও নিজেদের জীবনের তোয়াক্কা না করে তাঁরা  নিয়মিত মাঠে থাকছেন , দায়িত্ব পালন করছেন দিনের পর দিন।

    এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আসমা জাহান সরকারের সাথে মুঠোফোনের আলাপচারিতায় জানা যায়,যে জনগণের টাকায় আমার বেতন হয় সে জনগণ যেন ভাল থাকে, নিরাপদে থাকে। মাঠ পর্যায়ে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেক তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হয়েছে। নিয়ম ভাঙা মানুষকে যথাসাধ্য বুঝিয়ে শোধরাবার চেষ্টা করেছি। উদ্দেশ্য একটাই , ভাল থাকুক আমাদের প্রিয়   বাংলাদেশ।

    মোঃ সাজিদুর রহমান,সহকারী পুলিশ সুপার

    আমার বাবা-মা,ভাই-বোন  যারা আমাকে নিরাপদে দেখতে চায়, কাছে পেতে চায়। তাদের সকল আবেগ উপেক্ষা করে শতমাইল দূরে নিরলস কাজ করে যাচ্ছি শুধু দায়িত্ববোধ আর কর্তব্যনিষ্ঠা থেকে।

    দেশপ্রেমের মহানব্রত নিয়ে আমি ও আমার পরিবার যে পথচলা শুরু করেছি,মানবতার কল্যাণে সে সংগ্রাম চলবে আমৃত্যু।

    বিশ্বাস রাখি, করোনার এ দুর্যোগ কাটিয়ে পৃথিবী আবারো ফিরে পাবে তার চিরচেনা রূপ। আবারো আমরা সবাই মিলে একসঙ্গে হাসবো, প্রাণোচ্ছল পৃথিবীতে আবারো গায়ে মাখাবো সুস্থ পৃথিবীর মিষ্টি রোদ। আবারো শান্ত-শীতল হাওয়ায় বুক ভরে নিঃশ্বাস নেবো আপনি, আমি, আমরা মিলে।

    সে কাঙ্ক্ষিত সময়টা পর্যন্ত প্লিজ ঘরে থাকুন। আর আপনাদের নিরাপদ পথচলা, আপনাদের অধিকার নিশ্চিতকল্পে আমরা হাসপাতালে, মাঠেই আছি।

     

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    নবীনগরে ভুয়া ডাক্তার আটক

    ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | 8679 বার

    নবীনগরে অস্ত্র সহ গ্রেপ্তার ১

    ২৯ জানুয়ারি ২০১৮ | 3412 বার

    আর্কাইভ

  • ফেসবুকে nabinagar71.com