• শিরোনাম

    নবীনগরে সাংবাদিকে প্রাণনাশের হুমকি থানায় জিডি 

    নিজস্ব প্রতিবেদক | মঙ্গলবার, ১৬ নভেম্বর ২০২১ | পড়া হয়েছে 200 বার

    নবীনগরে সাংবাদিকে প্রাণনাশের হুমকি থানায় জিডি 

    ফাইল ছবি

    দৈনিক সমকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা প্রতিনিধি মাহাবুব আলম লিটনকে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। পৌর এলাকার সদর আদালত পাড়ার বউ সাজ বিউটি পার্লার এর মালিক বিলকিস বেগম তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে রবিবার (১৪.১১) রাতে আদালত মার্কেটের সামনের রাস্তায় প্রকাশ্যে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে প্রাণের নাশের হুমকি দেয়। ওই সাংবাদিক জীবনের নিরপত্তা চেয়ে রাতেই থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেন।
    স্থানীয়রা জানায়, ওই সাংবাদিক সম্প্রতি ‘নবীনগরে পার্লার ব্যবসার নামে চলছে দিনে দুপুরে ডাকাতি, নীতিমালা না থাকায় তিনগুন বেশী টাকা গুনতে হচ্ছে কাষ্টমারদের-লঙ্ঘিত হচ্ছে ভোক্তা অধিকার’ শিরোনামে রির্পোট করেন। এটা কেন্দ্র করে প্রাণে হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলার হুমকি দেয়।
    উল্লেখ্য,স্বল্পমূল্যের লোভ দিখিয়ে ওই পার্লার এর ভিতরে বিয়ের সাজের বউদের ঢুকিয়ে তারা নানান বাহানায় এটা লাগবে,সেটা লাগবে, কাজ শেষে একটি মোটা অংশের বিল ধরিয়ে দেয়। প্রতিবাদ জানালে কাস্টামারদেরকে পেশী শক্তির ভয় দেখিয়ে,স্বাী না থাকলে সত্যটা অস্বীকার করে, দুর্ব্যবহার করে মোটা অংকের বিলের টাকা আদায় করে। মান সম্মাানের ভয়ে কাস্টমার ওই মোটা অংকের বিল দিয়ে আসতে বাধ্য হয়। এতে লঙ্ঘিত হচ্ছে ভোক্তা অধিকার,অধিকাংশগুলো ট্রেডলাইসেন্স-এর আওতায় না আসায় সরকার হারাচ্ছে মোট অংকের রাজস্ব।
    পৌর এলাকার আদালত পাড়ায় “বউ সাজ বিউটি পার্লার” নামের এই প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধেই এ অভিযোগ উঠে। পৌরসদরের ভিতরেই রয়েছে প্রায় ১৫টি পার্লার, ৯টি ওয়ার্ডে মিলিয়ে আরো বেশী হতে পারে। পৌরসভার ট্রেডলাইসেন্স-এর আওতায় এসেছে মাত্র ৮টি পার্লার, এই ৮টি’র মধ্যে অনেকেরই ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন নেই। বাকিগুলোর লাইসেন্সই নেই। এতে সরকার মোটা অংকের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
    বৌ-সাজের বিষয়টি খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- ৪টি স্তরে এর আলাদা আলাদা মুল্য নির্ধারণ করেন পার্লার ব্যবসায়ীরা। প্রথম স্তরে-ফুল বডি ফেসিয়াল, দ্বিতীয় স্তরে-মেহেদী পড়ানো, তৃতীয় স্তরে -হলুদ সাজ, চতুর্থ স্তরে -বিয়ের সাজ। এই চারটি স্তরের হাই কোয়লিটি সাজের জন্য ‘বউ সাজ বিউটি পার্লার’-এর বিল ১৭০০০ ।
    অন্যান্য পার্লার গুলোতে অলাদা আলাদা ওই ৪টি স্তরের হাই কোয়ালিটির সাজের সর্বসাকুল্য দাম চেয়েছেন ৮৫০০,৭২০০, ৬৭০০,৭০০০,  ৭০০০, ৮২০০,৭০০০। ওই একটি পার্লারের সাথে অন্যন্য পার্লারে দামের এত আকাশ পাতাল পার্থক্যের কারণে ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত করতে পৌর কতৃপক্ষের প্রতি একটি নীতিমালা প্রনয়নের জোর দাবী জাননো হয় ওই ওই সাংবাদিকের প্রতিবেদনে।
    এ ব্যাপারে পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট শিব শঙ্কর দাস এই বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে জানিয়ে তিনি পৌরসভার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে প্রতিটি পার্লারের তালিকা তৈরীর নির্দেশনা দিয়েছেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    নবীনগরে প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যা

    ১৫ অক্টোবর ২০২০ | 866 বার

    আর্কাইভ

  • ফেসবুকে