• শিরোনাম

    নবীনগর শ্যামগ্রামে আশ্রয়নে পুনর্বাসিত অসহায়দের শীত নিবারণে ইউএনওর উষ্ণ পরশ

    নিউজ ডেস্ক | মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২০ | পড়া হয়েছে 316 বার

    নবীনগর শ্যামগ্রামে আশ্রয়নে পুনর্বাসিত অসহায়দের শীত নিবারণে ইউএনওর উষ্ণ পরশ

    মেঘনার ভাঙনে নিঃস্ব মানুষগুলোর অবশেষে ঠাই মিললো আশ্রয়ন প্রকল্পে। এই শীতে শীতবস্ত্র কেনাতো দূরের কথা তীব্র শীত নিবাড়নের জন্য নেই কোনো ব্যবস্থা।

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শ্যামগ্রাম ইউনিয়নের ছাবাছপুর গ্রামে আশ্রয়ন প্রকল্পে বসবাসরত হতদরিদ্র জনিগোষ্ঠীর যখন এ অবস্থা ঠিক তখনই পুনর্বাসিত সব গুলো পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একরামুল ছিদ্দিক ।

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার,গৃহহীন থাকবে না আর এই স্লোগানে নির্মিত হচ্ছে আশ্রয়কেন্দ্র।
    প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল এবং ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় থেকে পাওয়া কম্বল নিয়ে (২১ ডিসেম্বর) মধ্যরাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রয়ন কেন্দ্রের বাসিন্দাদের কাছে হাজির হন।

    এসময় প্রতিটি মানুষের বাস্তব অবস্থা প্রত্যক্ষ করে তাদের গায়ে জড়িয়ে দিলেন শীতের সম্বল ‘কম্বল’।

    জানা গেছে, গত কয়েক দিন ধরে নবীনগরে তীব্র শীত পড়ছে। এতে নদীভাঙনে সহায়-সম্বল হারানো পরিবারের সদস্যসহ হতদরিদ্র জনগোষ্ঠী শীতবস্ত্রের অভাবে মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন।

    1. মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে ওইসব মানুষের পাশে দাঁড়ানো জরুরী মনে করে সরকারিভাবে বরাদ্দ পাওয়া অর্ধশত কম্বল নিয়ে উপজেলার শ্যামগ্রাম ইউনিয়নের ছাবাছপুর গ্রামে আশ্রয়ন প্রকল্পে ছুঁটে যান ইউএনও একরামুল ছিদ্দিক। পুরো আশ্রয়ন প্রকল্প ঘুরে শীতার্ত মানুষের দূর্ভোগ প্রত্যক্ষ করে তাদের গায়ে কম্বল জড়িয়ে দেন তিনি।

    উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একরামুল ছিদ্দিক জানান, মেঘনা উপকূলীয় অনগ্রসর এ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এ রকম অনেক গরীব-অসহায় রয়েছেন যারা শীতবস্ত্রের অভাবে তীব্র শীতের সময় খুব কষ্টে দিন কাটান। সরেজমিন গেলে তা ভালোভাবে প্রত্যক্ষ করা যায়। যে কারণে তিনি ওই উদ্যোগ নিয়েছেন। তবে এভাবে প্রত্যন্ত অঞ্চলে গিয়ে আরও কিছু কম্বল বিতরণ করা হবে বলেও তিনি জানান।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    নবীনগরে প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যা

    ১৫ অক্টোবর ২০২০ | 775 বার

    আর্কাইভ

  • ফেসবুকে